-->

Breaking News

চান্দিনায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট থেকে স্ত্রী-মেয়েকে বাঁচাতে গিয়ে বাবার মৃত্যু

তাপস চন্দ্র সরকার, কুমিল্লা প্রতিনিধি: কুমিল্লার চান্দিনায়  স্ত্রী ও মেয়েকে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট থেকে বাঁচাতে গিয়ে মৃত্যু হয়েছে মো. পলাশ (৪০) নামের এক গৃহকর্তার। এ ঘটনায় প্রাণে বেঁচে গেছেন স্ত্রী ও মেয়ে।

রবিবার (৩ সেপ্টেম্বর) বিকেল সাড়ে চারটার দিকে উপজেলার মহিচাইল ইউনিয়নের তেতুইয়া ফকির বাড়িতে এ দুর্ঘটনা ঘটে। মৃত পলাশ ওই গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে।

জানা যায়- গোসল শেষে স্ত্রী পারভীন বেগম তারে কাপড় শুকাতে দিলে সে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হলে তাকে বাঁচাতে যান তার গর্ভবতী মেয়ে আনিকা আক্তার। তখন সেও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়। স্ত্রী-মেয়ে কে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট দেখে গৃহকর্তা পলাশ মিয়া তাদের বাঁচাতে গেলে তিনিও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। এরপর প্রতিবেশীরা তাকে উদ্বার করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। রাতেই তার মরদেহ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

এদিকে, পলাশের স্ত্রী প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে সুস্থবোধ করলেও গর্ভবতী মেয়ে কে উদ্বার করে চান্দিনার একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যায় প্রতিবেশীরা। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক সিজারিয়ান অপারেশন করান। জানা গেছে- মা ও শিশু সুস্থ আছে।

স্থানীয় ওয়ার্ড সদস্য রুহুল আমিন জানান- গর্ভবতী মেয়ে আনিকা তার বাবার বাড়ি বেড়াতে এসেছিলেন। রবিবার বিকেলে স্ত্রী ও মেয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হতে দেখে তাদের ছাড়াতে যান পলাশ। স্ত্রী ও মেয়ের পায়ে জুতা থাকলেও পলাশের পায়ে জুতা ছিল না। এ কারণে খুব দ্রুত বিদ্যুতায়িত হয়ে পলাশ মারা গেছেন।

এ ঘটনা থানা পুলিশ অবগত নয় বলে জানান চান্দিনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহাবুদ্দীন খান ।

No comments