-->

Breaking News

শিক্ষক হত্যার চেষ্টায় দুর্বৃত্তদের বিচার চাই

তৌফিক সুলতান, কাপাসিয়া,গাজীপুর:

গাজীপুরের কাপাসিয়ায় রোববার রাতে উপজেলার চরদুর্লভ খান আ. হাই সরকার উচ্চ বিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের সহকারী শিক্ষক নুরুল ইসলামকে (৫৫) এলোপাথাড়ি কুপিয়ে হাত ও পায়ের রগ কেটে দেয়া হয়েছে। বর্তমানে তিনি ঢাকার পঙ্গুহাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এলাকাবাসী ও ওই বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শিব্বির আহমেদ জানায়, শিক্ষক নুরুল ইসলাম প্রতিদিন স্কুল শেষে বারিশাব বাজারে অবস্থিত তার একটি হোমিওপ্যাথিক দোকানে প্র্যাকটিস করতেন যার ফলে তিনি অনেক রাত করে বাড়িতে ফিরতেন। অন্যান্য দিনের মতো তিনি রোববার রাতে আনুমানিক বারোটার পরে বাড়ি ফিরছিলেন। ভিকারটেক (ডুবারটেক) এর সামনের রাস্তায় অজ্ঞাত লোকজন তাকে কুপিয়ে পার্শ্ববর্তী একটা পুকুরে ফেলে রেখে যায়। সেখান থেকে তিনি মুমূর্ষু অবস্থায় পার্শ্ববর্তী বকুলের বাড়িতে আশ্রয় নেন। এলাকাবাসী উদ্ধার করে তার পরিবারসহ প্রথমে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এবং পরে পঙ্গু হাসপাতালে প্রেরণ করে।

শিব্বির আহমেদ আরো জানায়, নুরুল ইসলাম মাস্টার সাহেব অত্যন্ত ভদ্রলোক ছিলেন তার কারো সাথেই কোন বিবাদ আছে বলে জানা নেই। তবে সম্প্রতি একটি মসজিদের রাস্তানিয়ে মতবিরোধ চলছিল এ প্রেক্ষিতেও এ ঘটনা ঘটতে পারে।

এ ব্যাপারে কাপাসিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ এ ইচ এম লুৎফুল কবির জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এখনো কোন লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। সন্ত্রাসীদের নির্মম হামলার প্রতিবাদে এবং দুর্বৃত্তদের বিচারের আওতায় এনে শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন করছে অত্র বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থীবৃন্দ।

শিক্ষার্থীরাও এই হামলার তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে। সেই সাথে এই ন্যাক্কারজনক কাজ যারা করছে এর সাথে জড়িত সবার দ্রুত গ্রেফতার এবং সর্বোচ্চ সাজার দাবি জানাচ্ছে। যেখানে আমরা শিক্ষক কে পিতৃতুল্য মনে করি শ্রেষ্ঠ আসেন স্থান দেই। সেখানে এই ধরনের ঘটনা শিক্ষার্থীদের হৃদয় কে নাড়িয়ে দেয়। এমন অমানবিক কাজ যেন কখনো কারোর সাথে না হয় এমনটাই দাবি। 

এই বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য কতৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। 

No comments