-->

Breaking News

মেজর অপারেশনের নয় ঘন্টা পরেই এইচএসসি পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ

এপেন্ডিসাইটিস সার্জারির ৯ ঘন্টা পরেই চলমান এইচএসসি পরীক্ষা দিতে শিক্ষার্থী পরীক্ষা কেন্দ্র 

মইনুল ইসলাম মিশুক হোমনা উপজেলা: কুমিল্লার হোমনা সরকারি ডিগ্রী কলেজের চলমান এইচএসসি পরীক্ষার্থী মোসা: শাহিনুর আক্তার ১৯ , পিতা সফিকুল ইসলাম, মাতা পারুল বেগম, গ্রাম ওপারচর।

সে গত ৭ দিন যাবত পেটের ব্যথা নিয়ে চলমান এইচএসএসসি পরীক্ষার ছয়টি বিষয়ে অংশগ্রহণ করেন। হঠাৎ গতকাল ঐ শিক্ষার্থীর পেটে ব্যথা তীব্র আকার ধারণ করলে তাৎক্ষণিক তাকে হোমনা ডক্টর'স হসপিটাল হোমনা-কুমিল্লা নিয়ে আসা হয়। এসময় ল্যাপরোস্কপিক সার্জন ডাক্তার মাহবুবুর রহমান এফসিপিএস এর শরণাপন্ন হন। তখন ডাক্তার মাহবুবুর রহমান ওই শিক্ষার্থীর পরীক্ষা নিরীক্ষা করে বুঝতে পারলেন তার এপেন্ডিসাইটিস সমস্যা।

ডাক্তার বললেন অপারেশন করাতে হবে। এসময়  ডাক্তার জানতে পারলেন সে চলমান এইচএসসি পরীক্ষার্থী। আজ মঙ্গলবার তার পৌরনীতি পরীক্ষা রয়েছে। ডাক্তার বললেন কোন সমস্যা নেই ল্যাপরোস্কোপিক সার্জারি মাধ্যমে অপারেশন করলে 6 ঘণ্টার মধ্যে রোগী সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরতে পারবে এবং পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

অবশেষে ডাক্তার মাহবুবুর রহমান রোগীকে ল্যাপরোস্কপিক সার্জারির মাধ্যমে অপারেশন করেন রাত ২টায়। সফলভাবে তার অপারেশন হয়। আজ সকালেই বাড়ি ফিরে যায় এবং সকাল ১০ টায় পরীক্ষা কেন্দ্র রেহানা মজিদ মহিলা কলেজে উপস্থিত হয়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। তার পরীক্ষা অংশগ্রহণের জন্য সার্বিক সহযোগিতা করেন কেন্দ্র সচিব। এসময় কেন্দ্র সচিব বলেন আমরা যখন শুনেছি তখন থেকেই ঐ শিক্ষার্থীকে পরীক্ষা দেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। তার জন্য নার্স ও একজন শিক্ষক পরীক্ষার চলাকালীন পর্যন্ত সার্বিক দেখাশোনায় দায়িত্ব দিয়েছি। আজ তার ৮ম পরীক্ষা।

এ সময়ের পরীক্ষা কেন্দ্রে দায়িত্বপ্রাপ্ত অফিসার স্বপন চন্দ্র বর্মন, উপজেলা পল্লী উন্নয়ন অফিসার হোমনা কুমিল্লা বলেন অসুস্থ শাহিনুর আক্তরকে সার্বিক সহযোগিতায় কেন্দ্রের সবাই তৎপর রয়েছেন।

অপরদিকে মহিলা কলেজ কেন্দ্রে হোমনা সরকারি ডিগ্রী কলেজের তিন বিভাগের  ৪০০ জন শিক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছেন। আজ অষ্টম ৮ম পরীক্ষায় ৩৫৫ জন শিক্ষার্থী মধ্যে ৩৫২ জন শিক্ষার্থী উপস্থিত রয়েছে।

No comments