-->

Breaking News

কুমিল্লায় শিশু আব্দুর রহমান হত্যা মামলায় ৩ জনের যাবজ্জীবন, ১ জনের চৌদ্দ বছর কারাদণ্ড

তাপস চন্দ্র সরকার, কুমিল্লা প্রতিনিধি: কুমিল্লার মুরাদনগরে শিশু আব্দুর রহমান (৫) কে অপহরণ করে শ্বাসরোধ করে হত্যার দায়ে তিনজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং একজনকে চৌদ্দ বছরের কারাদণ্ড প্রদান করেন কুমিল্লার আদালত। 

মঙ্গলবার (১২ আগস্ট ২০২৩) বিকেলে কুমিল্লার বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল-০৩ এর বিচারক (জেলা ও দায়রা জজ) মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার বোড়ারচর গ্রামের বাতেন বেপারীর ছেলে মোঃ ময়নাল হোসেন (৩৩), আবু মুসার ছেলে নাজমুল হাছান (৩০), মোঃ রবিউল হাসান (৩৪) ও মোঃ ছালামত খানের ছেলে মোঃ শাহীন খান প্রঃ শাহীন মিয়া (২০)। রায় ঘোষণাকালে দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা আদালত কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন। 

মামলার বিবরণে জানাযায়- ২০২১ সালের ২০ ফেব্রুয়ারী দিবাগত রাত ১১:৩০ ঘটিকা হইতে পরদিন রাত অনুমান ৩:১৫ ঘটিকার মধ্যে যেকোন সময় মুরাদনগর থানাধীন গাংগাটিয়া সাকিনস্থ বাদীর বসত বাড়ীর উত্তর পাশে চৌচালা টিনের ঘরের পূর্ব পাশের রুমের ভেতরে ভিকটিম মোঃ আব্দুর রহমান (৫) অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে আটক রাখিয়াছে। অনেক খোজাখুজি করে না পেয়ে ২০২১ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারী ভিকটিমের পিতা কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলার গাংগাটিয়া গ্রামের মৃত আবু তাহের এর ছেলে ওমান প্রবাসী মোঃ ফারুক মিয়া (৩৬) বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিকে আসামি করে ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন (সং/০৩) এর ৭/৩০ ধারা বিধানমতে মুরাদনগর থানায় অভিযোগ দায়ের করিলে তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মোঃ হামিদুল ইসলাম তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে আসামি মোঃ ময়নালকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদে জানায় যে, আব্দুর রহমান (৫) কে অপহরণ করে বাদীর নিকট ৩০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী করেন। উক্ত দাবীকৃত টাকা দিতে না পারায় অপহরণের ১০দিন পর ভিকটিম আব্দুর রহমানকে ময়নাল হোসেনসহ অপর আসামিরা পরষ্পর যোগসাজশে গলা চাপিয়া শ্বাসরোধ করে হত্যা করে আসামি ময়নালের আবাদি জমিতে মাটি খুড়িয়ে পুঁতে রাখে এবং তার দেখানো মতে থানাপুলিশ আব্দুর রহমানে লাশ উদ্ধার করে। পরবর্তীতে রাষ্ট্র পক্ষে আনীত অভিযোগ প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হওয়ায় মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মোঃ হামিদুল ইসলাম ২০২২ সালের ২৩ জানুয়ারি আসামি মোঃ ময়নাল হোসেন, নাজমুল হাসান, মোঃ রবিউল হাসান ও মোঃ শাহিন খান এর বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন (সং/০৩) এর ৭/৩০ ধারা তৎসহ দণ্ডবিধির ৩৮০/৩০২/২০১/৩৪ ধারা এবং  আসামি মোঃ আলাউদ্দিনের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৩৮৬ ধারার বিধানমতে বিজ্ঞ আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন যাহার অভিযোগপত্র নং-  ০৮ (ক)। তৎপর মামলাটি বিচারে আসিলে আসামিগণের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ধারায় চার্জগঠন শেষে রাষ্ট্রপক্ষে ০৭জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে যুক্তিতর্ক শুনানি অন্তে আসামির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি পর্যালোচনাক্রমে আসামিদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় আসামি ময়নাল হোসেন, নাজমুল হাছান ও মোঃ শাহীন খান প্রঃ শাহীন মিয়াকে যাবজ্জীবন ও প্রত্যেকে ৫০ হাজার টাকা করে অর্থ দণ্ড; আনাদয়ে আরও ০৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড এবং অপর আসামি মোঃ রবিউল হাসানকে ১৪ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা অর্থ দণ্ড; অনাদায়ে আরও ০৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন আদালত।

এ রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে রাষ্ট্রপক্ষের বিজ্ঞ আইনজীবী স্পেশাল পিপি এডভোকেট মোঃ আমজাদ হোসেন বলেন- আশা করছি উচ্চাদালত এ রায় বহাল রাখবে। এরফলে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বলে আমি মনে করি।  আসামি পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এডভোকেট মোঃ এইচ এম আবাদ।

No comments