-->

Breaking News

দেবীদ্বারে হামলার ঘটনায় চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতাসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ

তাপস চন্দ্র সরকার, কুমিল্লা প্রতিনিধি: কুমিল্লা দেবীদ্বারে ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে সংখ্যালঘুর বাড়িতে হামলা ও মারধরের ঘটনায় চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতাসহ  ৬ জনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে হামলার শিকার প্রবীর কুমার সাহা বাদী হয়ে ওই অভিযোগপত্র দাখিল করেন। 

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে- উপজেলার জাফরগঞ্জ ইউনিয়নের বেগমাবাদ গ্রামের ধীরেন্দ্র সাহার পুত্র প্রবীর সাহার বাড়ির সাথে ক্রয়কৃত ২ শতাংশ জমি বাড়ির সাথে মিলিয়ে টিনের সীমানা ভেঙ্গে পাকা প্রাচীর নির্মাণ করতে গেলে, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান জাহিদুল আলম নিজেই ওই বাড়িতে গিয়ে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ ও সীমানা প্রাচীর নির্মাণ শ্রমিকদের বাঁধা, নির্মাণ সামগ্রী ভাংচুর ও ফেলে দেয়া এবং প্রবীর সাহার উপর হামলা করেন। ওই ঘটনায় মঙ্গলবার দুপুরে হামলার শিকার প্রবীর কুমার সাহা বাদী হয়ে উপজেলার জাফরগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহিদুল আলম (৩২), উপজেলা আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক সুজিত পোদ্দার (৫৫) ও আপন রায় (৫০)সহ অজ্ঞাত আরো ৩ জনকে আসামী করে ওই অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

হামলার শিকার প্রবীর সাহা বলেন- অন্য এলাকা থেকে আসা একটি পরিবারের বাড়ির সৌন্দর্য বৃদ্ধিকরণে আমার বাড়ির জায়গা জোরপূর্বক দখল করে নেয়ার ষড়যন্ত্রে ইউপি চেয়ারম্যান জাহিদুল আলমের নেতৃত্বে কয়েকজন এবং সে নিজেই আমার বাড়িতে হামলা, ভাংচুর ও আমাকে অকথ্য ভাষায় গালমন্দই নয়, আমাকে বেধরক মারধর ও লাঞ্ছিত করে। ওই ঘটনার সময় ধারন করা একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল এবং থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়ার পরও তাকে গ্রেফতার পূর্বক আইনের আওতায় আনা হলনা। আমি ও আমার পরিবার এখন জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় আছি। আমি হামলাকারী চেয়ারম্যান ও তার সহযোগীদের দ্রুত গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানাচ্ছি।

এবিষয়ে দেবীদ্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কমল কৃষ্ণ ধর প্রবীর সাহার লিখিত অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিগার সুলতানার সাথে এবিষয়ে কথা বলতে একাধিকবার ফোন দিলে ওপার থেকে ফোন রিসিভ করে তিনি বাসায় নেই বলে জানানো হয়েছে, তাই আর কথা বলা সম্ভব হয়নি।

No comments