-->

Breaking News

সমাজসেবক মোশারফ হোসেনকে পোরজনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চান ইউনিয়নের জণগণ

মো: সাহেব আলী, শাহজাদপুর প্রতিনিধি: চারিদিকে যখন আলোচনা চলছে সংসদ নির্বাচনের আর সেই সময় ইউপি নির্বাচন কে কেন্দ্র করে সবার মুখে মুখে আলোচনায় উঠে এসেছেন মালয়েশিয়া প্রবাসী বিশিষ্ট সমাজ সেবক মোশাররফ হোসেন।

শাহজাদপুরের ৬নং পোরজনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচনের দেরি আছে এখনো প্রায় ৯ মাস। এতোটা সময় বাকি থাকা শর্তেও ভোটারদের মাঝে তৈরি হয়েছে সঠিক প্রতিনিধি বাছাই করার প্রবণতা। আর সেই প্রবণতা থেকেই চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে মালয়েশিয়া প্রবাসী মো: মোশাররফ হোসেনকে সবাই চাচ্ছেন। 

শাহজাদপুর উপজেলার ৬নং পোরজনা ইউনিয়ন বাসী, মোশারফ হোসেনকে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে দেখার জন্যে ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রাম ছোট মহারাজপুর,বাচড়া,চর-বাচড়া,পোরজনা,চর-পোরজনা,উল্টাডাব,রানীকোলা,জামিরতা,নন্দলালপুর,বড় মহারাজপুর,কাকুরিয়া ও পুঠিয়া গ্রামের যুব সমাজের পক্ষ থেকে গ্রমের বিভিন্ন জায়গায় ডিজিটাল পোস্টার ও ব্যানার টাঙ্গানো হয়েছে এবং এদের মধ্যে শুরু হয়েছে নানা গুঞ্জন, প্রচার-প্রচরনা ও গনসংযোগ।

এ বিষয়ে পোরজনা ইউনিয়নবাসীর সাথে কথা বলতে গেলে তারা জানান: মোশাররফ হোসেন শিশু, কিশোর, যুবকদের মাঝে যেমন জনপ্রিয়, তেমনি মুরুব্বিদের কাছেও গ্রহণযোগ্যতা আছে তাঁর। তিনি করোনাকালীন সময়ে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায়, দরিদ্র, দিনমজুর, গরিব-দুঃখীদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী সহ বিভিন্ন সাহায্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। অন্যায় ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে একজন প্রতিবাদী কণ্ঠস্বর প্রবাসী মোশাররফ হোসেন। কোন অনিয়ম দুর্নীতিকে প্রশ্রয় দেন না তিনি। এমনকি মাদকের বিরুদ্ধে সবসময় কঠোর। তরুণ ও যুবসমাজ যেন মাদকের ভয়াবহ ছোঁবলে না পড়ে সেজন্য পোরজনা ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় যুব ও তরুণদের নিয়ে মতবিনিময় করে থাকেন। সবমিলিয়ে মোশাররফ হোসেন পোরজনা ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধি হলে আমরা আমাদের ন্যায্য অধিকার ফিরে পাবো। এখন শুধু সময়ের অপেক্ষায় রয়েছি আমরা পোরজনা ইউনিয়ন বাসী।

চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বিশিষ্ট সমাজ সেবক মোশাররফ হোসেন বলেন, আমি কখনো ভাবিনি জনপ্রতিনিধি হয়েই শুধু মানুষের সেবা করা যায়। আমার সব সময় ইচ্ছা ছিল পর্দার আড়ালে থেকে মানুষের সেবা করা। যেহেতু পোরজনা ইউনিয়নবাসী আমাকে চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চাচ্ছে তাহলে আমি তাদের কথা রাখার চেষ্টা করব। এবং এই পোরজনা ইউনিয়নের সকল সমস্যা সমাধান করার চেষ্টা করবো। এমনকি ইউনিয়ন বাসীর সকল সুখে-দুঃখে তাদের পাশে থাকার চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ।

তিনি আরো বলেন,জনগণ চাচ্ছে বলেই আমি নির্বাচন করতে ইচ্ছে প্রকাশ করেছি। কারন জনগণের ভোট ছাড়া আমি নির্বাচনে বিজয়ী হতে পারবো না। তাই জনগণের সিদ্ধান্তই আমার চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত। আগামীতে আমি ইউপি নির্বাচন করবো শুধু জনগণের জন্যে। বিগতদিন থেকেই স্বপ্ন ছিল মানুষের সেবা করার কিন্তু আমি জানিনা আমি কতটুকু করতে পেরেছি। যদি আমি চেয়ারম্যান হয়ে আগের থেকে আরো বেশি জনগণের সেবা করতে পারি, তাহলে জনগণের জন্য আমি চেয়ারম্যান নির্বাচন করব । এবং তাদের সকলের চাওয়া পাওয়া পূর্ণ করবো ইনশাল্লাহ। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন।


No comments